নর্থ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের সৎ ভাই কিম জং ন্যাম মালয়েশিয়ায় খুন হয়েছেন। তিনি গুপ্তহত্যার শিকার বলে জানিয়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যম।

ন্যামকে কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে বিষ প্রয়োগে হত্যা করা হয়। নর্থ কোরিয়ার সংবাদ সংস্থা ইয়নহাপসহ অন্যান্য গণমাধ্যমের বরাতে খবর দিয়েছে আল-জাজিরা। তবে সবাই অসমর্থিত সূত্রের বরাতে খবর প্রকাশ করেছে।

সাউথ কোরিয়ার সরকারি সূত্রের বরাতে ইয়নহাপ জানায়, কিম জং ন্যাম সোমবার সকালে মালয়েশিয়ার খুন হয়। এর বেশি কিছু জানায়নি।

চোসান টেলিভিশন চ্যানেল জানায়, দুজন অপরিচিত নারী ন্যামকে কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে আক্রমণ করে সুইয়ের মাধ্যমে বিষ প্রয়োগ করে। ওই দুই নারী নর্থ কোরিয়া দ্বারা পরিচালিত বলে ধারণা করা হচ্ছে। মালয়শিয়ান পুলিশের ধারণা, এই হত্যার পেছনে নর্থ কোরিয়ার হাত রয়েছে।

অবশ্য চোসান টেলিভিশন চ্যানেলও সাউথ কোরিয়ার বিভিন্ন সূত্রের বরাতে সংবাদটি প্রকাশ করেছে।

মালয়েশিয়ার পুলিশ জানিয়েছে, মৃত ব্যক্তির পরিচয় সম্পর্কে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এই খবর যদি শেষ পর্যন্ত নিশ্চিত হয়, তাহলে ২০১৩ সালের পর কিম জং উনের শাসন আমলে সবচেয়ে বড় হত্যাকাণ্ডের ঘটনা হবে এটি। ক্ষমতায় বসার পর ২০১৩ সালে মন্ত্রীসভার প্রভাবশালী সদস্য ও নিজের ফুফাকে হত্যা করেন কিম।

কিম জং ন্যাম নর্থ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট কিম জং ইলের বড় ছেলে। তিনি সরকারি কোনো পদপদবি ছাড়াই বিদেশে বসবাস করছিলেন। কিম জং ইল ও সাউথ কোরিয়ান অভিনেত্রী সাং হায়ে-রিমের অ-বৈবাহিক সম্পর্কের সময় জন্ম নেন ন্যাম। সাং হায়ে-রিম ২০০২ সালে মস্কোতে মারা যান।