রাবি প্রতিনিধি: মজিদ খানের শিক্ষা নীতির বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনে ১৯৮৩ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন স্বৈরশাসক এরশাদ পুলিশ বাহিনী দিয়ে ছাত্রনেতাদের ওপর হত্যা করে ১০ ছাত্রনেতাকে। মজিদ খানের শিক্ষা সংকোচন, বাণিজ্যিকীকরণ এবং সাম্প্রদায়িকতাতার বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা সেই আন্দোলনকে সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে করেছে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মীরা। বিক্ষোভ মিছিলটি টুকিটাকি চত্বর থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সেখানে সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৪ ফেব্রুয়ারি কোন ভালোবাসা দিবস নয়, স্বৈরাচারী প্রতিরোধ দিবস এবং বর্তমান প্রজন্মকে তা ভূলিয়ে দেয়া হচ্ছে ইতিহাস বিকৃত করে। ১৪ ফ্রেব্রুয়ারি সৈরাচার পতন দিবসের ফসলই হচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ সালের আন্দোলন। সমাবেশ থেকে সকল ধরনের শিক্ষা বাণিজ্য, শিক্ষা সংকোচন ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে অবস্থান নেবার ঘোষণা দেয়া হয়।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মিনহাজুল আবেদিন, ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি কিংশুক কিঞ্জল, ছাত্র মৈত্রির সভাপতি প্রদীপ মার্ডি, সাধারণ সম্পাদক দীলিপ রায়, ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জোহা সাদিক প্রমুখ।

Share