রাজীবুল হাসান, ভৈরব: রবিবার রাতে খুলনা থেকে অপহৃত ভিকটিম উদ্ধারসহ ৬ জন অপহরনকারীকে অস্ত্রসহ আটক করেছে ভৈরব র‌্যাব-১৪ সদস্যরা।

এসময় অপহরণকারীদের কাছ থেকে মুক্তিপণের ১ লাখ ৫ হাজার ৫ শ টাকাসহ ১ টি বিদেশী পিস্তল, ১১ রাউন্ড গুলি, ২ টি খালী ম্যাগজিন, ও ৭ টি মোবাইল সিম উদ্ধার করা হয়। অপহৃত ব্যক্তির নাম মোঃ মোনায়েম খান মিথুন ( ২৬)। তার বাবার নাম মৃত হাফিজুর রহমান এবং বাড়ী খুলনার ভাটিয়াঘাটা থানার ভাটিয়াঘাটা গ্রামে র‌্যাব জানায়। আটককৃত অপহরনকারীরা হল কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার সংসদ সদস্য মোঃ আফজাল হোসেনের শ্যালক ও মতিউর রহমানের পুত্র ওমর ফারুক রাসেল ( ৩৫) , তাড়াইল উপজেলার মোঃ সাঈদ ইবনে নূর ( শিহাব) , বাজিত পুর থানার হাজি সাঈদুর রহমানের ছেলে মোঃ গোলাম কাউছার মন্টু ( ৩৮) , একই এলাকার বাচ্চু মিয়ার ছেলে মোঃ রাকিবুল হাসান রাকিব ( ২০), বাজিত পুর থানার মুছা মিয়ার ছেলে মোঃ মান্নান মিয়া ( ৩০) ও ভৈরব উপজেলার সাদেক পুর গ্রামের ইমাম উদ্দিনের ছেলে সোহানুর রহমান ( ১৯) । এ ব্যাপারে সোমবার বাজিত পুর থানায় একটি মামলা করা হয়।

ঘটনার বিবরনে জানা গেছে, ভিকটিম মোনায়েম খান মিথুন গত ৭ জুন একটি গাড়ীসহ নিখোঁজ হয়। তারপর তার বড় বোন ইয়াসমিন আক্তার জুলিয়েট এর কাছে অপহরণকারীরা মোবাইলে ৩৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে এবং মুক্তিপনের টাকা কিশোরগঞ্জ একটি ব্যাংক হিসাবে বা এস এ পরিবহনের মাধ্যমে দিতে বলা হয় তার বোনকে। টাকা না দিলে তার ভাইকে হত্যা করা হবে বলে অপহরণকারীরা বোনকে হুমকি দেয়। পরে তার বোন ভৈরব র‌্যাব সদস্যদেরকে গত ১৬ জুন ঘটনাটি জানায়। তারপর পরিকল্পনা অনুযায়ী র‌্যাব সদস্যদের অবগত করে তাদেরকে নিয়ে অপহরণকারী দলকে এস এ পরিবহনের মাধ্যমে ৭ লাখ টাকা পরিশোধ করতে যায় তার বোন। টাকা গ্রহণের সময় সংসদ সদস্যের শ্যালক ওমর ফারুক রাসেল ও সাঈদ ইবনে নূরকে আটক করে ভৈরব র‌্যাব সদস্যরা। তারা দুজনকে আটক করার পর তাদের তথ্য অনুযায়ী ঘটনার সাথে জড়িত অপর ৪ জনকে রবিবার গভীর আটক করা হয়।

ভৈরব র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর শেখ নাজমুল আরেফিন পরাগ জানান, অপহরনকারীরা দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন এলাকায় চাদাঁবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ নানা অপরাধ করে আসছে।

Share